Breaking News

সেই মা’রিয়াকে নিয়ে খেলায় মা’তলেন ডিসি

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজে’লার হেলতলা ইউনিয়নের খলিসা গ্রামে পরিবারের সব স্বজন হা’রানো সেই মা’রিয়া সুলতানা এখনও রয়েছে জে’লা প্রশাসক (ডিসি) এস.এম মোস্তফা কামালের তত্ত্বাবধানে। মঙ্গলবার বিকেলে মা’রিয়াকে নেয়া হয় ডিসি বাংলো কার্যালয়ে। এ সময় শি’শু মা’রিয়াকে কোলে নিয়ে খেলায় মাতেন ডিসি মোস্তফা কামাল।

গত ১৫ অক্টোবর ভোররাতে নৃ’শংসভাবে হ’ত্যার শিকার হন খলিসা গ্রামের মাছের ঘের ব্যবসায়ী মো. শাহিনুর রহমান (৪০), তার স্ত্রী’ সাবিনা খাতুন (৩০), ছে’লে সিয়াম হোসেন মাহী (৯) ও মে’য়ে তাসমিন সুলতানা (৬)।

ছয় মাসের মা’রিয়াকে হ’ত্যা না করে মায়ের লা’শের পাশে ফেলে রাখা হয়। নৃ’শংস এ হ’ত্যাকা’ণ্ডটি ঘটিয়েছেন নি’হত শাহিনুর রহমানের ছোট ভাই রায়হানুল ইস’লাম।

সিআইডি পু’লিশের জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার স্বীকারোক্তিমূলক জবানব’ন্দি দেয় রায়হানুল। তিনি জানায়, পারিবারিক বিরোধের জেরে একাই তিনি এ হ’ত্যাকা’ণ্ড ঘটিয়েছে। বর্তমানে তিনি জে’লহাজতে রয়েছেন।

শিশু ঘটনার দিন নি’হতদের বাড়ি পরিদর্শনে গিয়ে পরিবারের সব সদস্য হা’রানো মা’রিয়া সুলতানার দায়িত্ব নেন জে’লা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল। তার পক্ষে হেলতলা ইউনিয়নের মহিলা ইউপি সদস্য নাসিমা বেগমকে শি’শুটির দেখাশোনার দায়িত্ব দেয়া হয়।

শি’শুটি হেফাজতে রাখা নাসিমা বেগম জানান, ডিসি স্যারের নির্দেশনায় বিকেলে মা’রিয়াকে নিয়ে তার বাংলো কার্যালয়ে যাওয়া হয়। তিনি মা’রিয়ার সার্বিক খোঁজ খবর নেন। খেলায় মেতে উঠেন। শি’শুটিকে দত্তক নিতে অনেকেই আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

শি’শুটির নানি ও দাদি তাদের কাছে নিতে চায়। তবে ডিসি স্যার জানিয়েছেন, যেহেতু চাচা এ হ’ত্যাকা’ণ্ড ঘটিয়েছে এ কারণে নানি বাড়ির হেফাজতে দেয়া হবে। তবে এখনও দেওয়া হয়নি। শি’শুটি এখনও আমা’র হেফাজতে রয়েছে।

শি’শুটির মামা কলারোয়া উপজে’লার যুগিখালী ইউনিয়নের উফাপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, এখন ডিসি স্যারের তত্ত্বাবধানে রয়েছে। মা’রিয়াকে আমাদের কাছে রাখতে চাই। এখনও ডিসি স্যার আমাদের কিছু জানায়নি। যেহেতু ওই পরিবারের সদস্যের হাতে সবাই খু’ন হয়েছে। তাই ওখানে মা’রিয়ার জীবন নিরাপদ নয়।

জে’লা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল বলেন, মা’রিয়া তার মা, বাবা, ভাই, বোনকে এক রাতে হারিয়েছে। মা’রিয়ার দাদি ও নানা নানি উভ’য়েই তাকে নিজেদের কাছে রেখে মানুষ করতে চায়।

এছাড়াও শতাধিক নিঃসন্তান দম্পতি মা’রিয়াকে দত্তক নিতে আগ্রহী। মা’রিয়া এখন ভালো আছে। জে’লা প্রশাসকের পক্ষে মহিলা ইউপি সদস্য নাসিমা বেগম তাকে দেখাশুনা করছে।

Check Also

আলু, পেঁয়াজ ক্রে’তাদের না’গালের বা’ইরে; নি’য়ন্ত্রণে দুই বছর সময় চা’ইলেন মন্ত্রী!

সাধারণ ক্রেতাদের নাগালের বাইরে আলু, পেঁয়াজের বাজার যাওয়ায় ক্ষুব্ধ সংসদীয় কমিটি। আগে থেকে কেনো ব্যবস্থা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *