Breaking News

সুস্থ থাকতে সকালের নাস্তায় ৭ খাবার

পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে এখন সবাই ঘরে সময় কাটাচ্ছে। এ সময় পরিবারের জন্য চাই বাড়তি যত্ন। বিশেষ করে বয়স্ক থেকে শুরু করে শিশু সবারই খাবারের প্রতি যত্নশীল হতে হবে।

সকালের খাবার সারাদিন শরীরকে শক্তি জোগায়। তবে কাজের চাপে অনেক সময়ই সকালে ভালো করে নাস্তা করা হয়ে ওঠে না। তাই অল্প সময়ে পুষ্টিকর কিছু খেতে বেছে নিন এমন কিছু খাবার যা সুস্থ রাখবে ও শরীরে শক্তি যোগাবে।

আসুন জেনে নিই এমন কিছু খাবার সম্পর্কে-

চা ও কফি:

সকালের আলস্য কাটাতে এক কাপ ধোঁয়া ওঠা চা বা কফি খেতে পারেন। ঘরে কিনে রাখতে পারেন টি ব্যাগ। অনেকে চায়ের বদলে কফি খেয়ে থাকেন। কফির প্যাকেট কিনে রাখুন ঘরে।

জেলি:

পাউরুটি, বিস্কুট, রুটিতে জেলি মাখিয়ে খেলে অনেকক্ষণ পেট ভর্তি থাকে। বাড়িতে নানা স্বাদের ফলের রস দিয়ে তৈরি জেলি কিনে রাখতে পারেন।

কর্নফ্লেক্স

পেট ভরানোর পাশাপাশি পুষ্টির দিকেও খেয়াল রাখতে খেতে পারেন আদর্শ কর্নফ্লেক্স। দুধে ভিজিয়ে প্লেন বা চকলেট স্বাদের কর্নফ্লেক্স খেতে পারেন। সুস্বাদু করতে তাতে মধু, ফলের টুকরোও যোগ করতে পারেন। এতে দুধ, কর্নফ্লেক্সের মধ্যে থাকা ভিটামিন, মিনারেলসের পাশাপাশি ফলের পুষ্টিও পাবে শরীর।

পিনাট বাটার:

পাউরুটি, বিস্কুট, রুটি বা স্যান্ডউইচে পিনাট বাটার মাখিয়ে খেতে পারেন। এর মধ্যে রয়েছে বাদামের পুষ্টিগুণ। যা আপনার পেশীকে শক্তিশালী করবে।

ওটস:

ওটসে প্রোটিন বেশি এবং ফাইবার সমৃদ্ধ হওয়ায় এটি স্বাস্থ্যকর খাবার হিসেবে পরিচিত। মশালা ওট থেকে শুরু করে টক দই দিয়ে প্লেন ওটসও আপনি খেতে পারেন।

ডালিয়া:

একটি বাটি ডালিয়াও প্রাতঃরাশের জন্য ভালো বিকল্প। ডায়েটার ফাইবার এবং প্রোটিনে ভরপুর এই উপাদান স্বাস্থ্যকর এবং ওজন কমাতে সহায়তা করে। ডালিয়ার সঙ্গে দুধ, পছন্দের ফল মিশিয়ে খেতে পারেন।

সুজি:

মিষ্টি সুজি কিংবা নোনতা উপমা খুব ভালো টিফিন। সবজি দিয়ে বানানো উপমা সকালে খাবারের জন্য খুব ভালো। এতে একফোঁটাও কোলেস্টেরল নেই। রয়েছে প্রচুর প্রোটিন।

তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

About Utsho

Check Also

হোটেলের বিছানার চাদর-বালিশ সাদা হওয়ার কারণ কী?

ঘুরতে নিশ্চয় ভালোবাসেন! আর দূরে কোথাও ঘুরতে যাওয়া মানেই হচ্ছে কোনো না কোনো হোটেলে রাত্রি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.