Breaking News

সম্পর্কে ভয়! সঙ্গী কমিটমেন্ট ফোবিয়ায় ভুগছেন না তো?

সিনেমায় কমিটমেন্ট ফোবিয়া অনেক দেখেছেন হয়ত। কিন্তু রিয়েল লাইফে দেখেছেন কাউকে? রিল আর রিয়েলে কিন্তু জমিন-আসমান ফারাক। বাস্তবে এই ধরনের মানুষের সঙ্গে থাকা বা সম্পর্কে জড়িয়ে পড়া বড্ড চাপের। যেমন, এঁরা কখনোই কোনও কথা দেন না।

বেশি গাঢ় সম্পর্কে জড়াতে চান না। সব বিষয়ে কেমন এড়িয়ে যান। সবকিছু এড়াতে অজুহাত খোঁজেন এঁরা। আপনার সঙ্গীও কি এমনটাই? এই ৫ লক্ষ্মণ (5 Signs) বলে দেবে, তিনি কমিটমেন্ট ফোবিক (Commitment Phobic) কিনা—

১. কোনও সম্পর্ক বেশিদিন টেকেনি
এঁরা বেশিদিন কারোর সঙ্গে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে চান না। এবং পারেনও না। সম্পর্কে এঁদের ভীষণ ভয়। তাই সম্পর্ক গড়ার সময় তার স্থায়ীত্ব নিয়েও কথা দিতে চান না এঁরা। এবং সঙ্গিনীর কথাতেও মনোযোগী নন। ফলে, এঁদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ার কথা কেই স্বপ্নেও ভাবেন না।

২. ঘন ঘন আচরণে বদল
কখনও এঁরা করব, বলব, হবে, দেব—সব্দগুলো ব্যবহার করেন না কথায়। উলটে বলেন, হতে পারে, হয়ত, দেখব, দেওয়া যাবে কিনা ভাবব—এই ধরনের কথা। অর্থাৎ, এঁদের কথাতেই এঁদের মনের ভেতর প্রতিফলিত হয়। এঁরা জোর দিয়ে কিছু বলেন না।

সবেতেই যেন গা-ছাড়া ভাব। সবকিছু এড়াতে অজুহাত খোঁজেন এঁরা। ঘুম নেই চোখে? দাওয়াই প্রেমিকের গায়ের গন্ধ…! সব কিছু এড়াতে অজুগাত খোঁজেন এঁরা
৩. নিজের দোষ নেই-ই
সম্পর্কে স্পেস খোঁজেন যেমন তেমনি নিজেদের ভুল কখনও দেখতে পান না দেখতে চান না। অন্যের ভুল ধরতে সিদ্ধহস্ত।

৪. ভবিষ্যত ভবির হাতে
কোনও পরিকল্পনায় যেতে আগ্রহী নন। এঁরা ডেটিংয়েও ভয় পান। ভবিষ্যতে সম্পর্ক কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে, আলোচনা করতে বা বলতে নারাজ। এবিষয়ে কথা উঠলেই থামিয়ে দেন এঁরা।

৫. দূরেই তুমি থেকো
এঁরা খুব কম লোকের সঙ্গে মিশতে পারেন। তাই চট করে পার্টি করতে বা গেট টুগেদারে যেতে রাজি হন না।একাকীত্ব এঁদের বেশি পছন্দ। বড় জোড় একজন বা দু-জন বন্ধুর সঙ্গে এঁরা কথা বলতে পারেন বা ভালোবাসেন। আশার কথা, এই ধরনের সমস্যা চিকিৎসায় সারে।

About Utsho

Check Also

হোটেলের বিছানার চাদর-বালিশ সাদা হওয়ার কারণ কী?

ঘুরতে নিশ্চয় ভালোবাসেন! আর দূরে কোথাও ঘুরতে যাওয়া মানেই হচ্ছে কোনো না কোনো হোটেলে রাত্রি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.