Breaking News

যে খাবার’গু’লি পু’রু’ষের যৌ’ন শ’ক্তি বা’ড়ায়

বাদাম খেতে কম বেশি সবাই পছন্দ করেন। এই খাবারের স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানি না।বাদাম ওজন নি`য়ন্ত্রণ থেকে শুরু করে ও মস্তিষ্কে শক্তি জোগায়।এতে রয়েছে প্রোটিন,ফাইবারসহ নানা রকম ভিটামিন ও মিনারেল।

তবে বাদামের আরও গুণাগুণ সাম্প্রতিক এক গবেষণায় উঠে এসেছে।গবেষকেরা বলছেন, স্বাস্থ্যবান পুরুষের জন্য বাদাম খুবই উপকারি খাবার। পুরুষের শারীরিক আকাঙ্ক্ষা বাড়ার সঙ্গে বাদামের সম্পর্ক খুঁজে পাওয়া গেছে ওই গবেষণায়।

এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের উইট্যাহ বিশ্ববিদ্যালয়, রোভিরা আই ভার্জিল ইউনিভার্সিটি ও স্পেনের পেরি ভার্জিল হেলথ রিসার্চ ইনস্টিটিউটের গবেষকেরা বিষয়টি নিয়ে গবেষণা চালান।

ইফেক্ট অব নাট কনজাম্পশন অন ইরেকটাইল অ্যান্ড সেক্সুয়াল ফাংশন ইন হেলদি মেলস: আ সেকেন্ডারি আউটকাম অ্যানালাইসিস অব দ্য ফার্টিনাটস র‍্যান্ডোমাইজড কনট্রোলড ট্রায়াল শীর্ষক গবেষণা নিবন্ধটি নিউট্রিয়েন্টস সাময়িকীতে প্রকাশ হয়েছে।

গবেষকেরা বলছেন, দৈনিক ৬০ গ্রামের মতো বাদাম খেলে লিবিডো বাড়ে। যারা নানা রকম যৌ`ন আকাঙ্ক্ষার অভাবে ভুগছেন তাদের চিকিৎসায় কাজে লাগবে বাদাম।পশ্চিমা নিম্নমানের খাবার অভ্যস্ত ৮৩ জন ব্যক্তিকে নিয়ে

একটি গবেষণা চালানো হয় ও তাদের একটি দলকে ১৪ সপ্তাহ পশ্চিমা খাবার খেতে বলা হয়।অন্য দলকে পশ্চিমা খাবারের পাশাপাশি কাজুবাদাম, হ্যাজলনাট ও আখরোট খেতে দেওয়া হয়। গবেষকেরা তাদের গবেষণায় শা`রীরিক আকাঙ্ক্ষাসংক্রান্ত ইতিবাচক ফল পাওয়া গেছে।

মুখে অনেক কালো দাগ? এখুনি দুর করে ফেলুন এই ঘরোয়া উপায়ে!মুখের কালো দাগের সমস্যায় ভুগছেন? সাধারণত ব্রণ বা ফুসকুড়ি সেরে যাওয়ার পর মুখের ত্বকে এই ধরনের কালো দাগ দেখা যায়। ঠিকঠাক চিকিৎসায় ব্রণ এবং দাগের হাত থেকে মুক্তি মেলে ঠিকই কিন্তু তার জন্য যে সব ওষুধ বা

ক্রিম জাতীয় জিনিস ব্যবহার করতে হয় সেগুলি যেমন ব্যয়বহুল, তেমনই তা থেকে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ভয়ও থেকে যায়। কিন্তু যদি প্রাকৃতিক উপায়ে এই ধরনের কালো দাগ দূর করা যায়, তাহলে সবচেয়ে ভাল হয়।

আয়ুর্বেদিক জার্নাল ফর মেডিক্যাল সায়েন্সেস-এ প্রকাশিত একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে তেমনই এক ঘরোয়া এবং নির্ভরযোগ্য উপায়ের, যার সাহায্যে মাত্র ৭ দিনে মুখের ত্বককে করে তোলা যাবে দাগমুক্ত।

আলু
মুখের কালো দাগ সরাতে ভালো কাজ করে আলুর রস। এক্ষেত্রে আলুর রসের সঙ্গে সামান্য মধু মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।

দুধ ও মধু
দুধ ও মধু একসঙ্গে মিশিয়ে কালো দাগের উপর দশ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। তারপর মুখ পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। টানা কয়েকদিনের ব্যবহারে আপনার মুখের দাগ উধাও হয়ে যাবে।

অ্যালোভেরা
অ্যালোভেরা জেল বা রস, মুখের দাগের উপর আলতো হাতে মালিশ করে নিন। প্রত্যেকদিন এর ব্যবহারে আপনার মুখের দাগ মুছে গিয়ে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে সাহায্য করবে। এক্ষেত্রে অ্যালোভেরা থেকে রস বের করে নিন। এর রস লাগানোর আগে মুখ ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। এরপর রস মুখে দিয়ে মাসাজ করুন। এছাড়া অ্যালোভেরা জেল দিয়ে মাস্ক বানিয়েও ব্যবহার করতে পারেন।

শসা ও টমেটো
শসা ও টমেটো মুখের উজ্জ্বলতা ও আর্দ্রতা বজায় রাখতে দুটোই কার্যকরী। কয়েকটি শসার টুকরো নিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করে নিন, তাতে সামান্য মধু ভালো করে মিশিয়ে মুখে লাগান। টমেটো কেটে মুখে আলতোভাবে ঘষতে থাকুন। তারপর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

পাকা পেঁপে
পাকা পেঁপে কালো দাগ দূর করতে ভালই সাহায্য করে। এক্ষেত্রে পাকা পেঁপের পেস্ট মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। সামান্য লেবুর রস মিশিয়েও তা ব্যবহার করতে পারেন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

লেবু
কালো দাগ তুলতে লেবু খুবই কার্যকরী। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ লেবুর রস ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় ও কালো দাগ দূর করে। দাগের উপর কিছুক্ষণ লেবুর রস ঘষতে থাকুন, শুকিয়ে এলে পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।

About Utsho

Check Also

হোটেলের বিছানার চাদর-বালিশ সাদা হওয়ার কারণ কী?

ঘুরতে নিশ্চয় ভালোবাসেন! আর দূরে কোথাও ঘুরতে যাওয়া মানেই হচ্ছে কোনো না কোনো হোটেলে রাত্রি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.