Breaking News

দেখা দিচ্ছে নতুন উপসর্গ: খোঁজ মিলেছে ৬ রকমের করো’না ভাই’রাসের

করো’নার ভাই’রাসে এখনও কাতর পুরো বিশ্ব। করো’না নিয়ে একের পর এক দুঃসংবাদই দিয়ে যাচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

সাথে সাথে মিলছে করো’নার নতুন নতুন আপডেট। এর মধ্যে আরো ছয় রকমের করো’নাভাই’রাসের অস্তিত্বের খবর জানালেন একদল ব্রিটিশ গবেষক। মা’র্চ থেকে এপ্রিল পর্যন্ত লন্ডনের কিংস কলেজের একদল গবেষক ব্রিটেন ও আ’মেরিকার প্রায় ১,৬০০ জন করো’না রোগীকে নিয়ে সমীক্ষা চালান।

এই ভাই’রাসে আ’ক্রান্ত হওয়ার পর থেকে ৮-১০ দিন পর্যবেক্ষণের পর রোগীদের থেকে পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে এই ছয় রকমের করো’নাভাই’রাসের অস্তিত্বের সন্ধান পেয়েছেন তারা।

গবেষকদের দাবি, ছয় রকমের করো’নাভাই’রাসের উপসর্গগু’লিও ভিন্ন ভিন্ন ধরনের। জেনে নেই এই ৬ করো’নার নতুন উপসর্গগুলোঃ

১. এই ধরনের করো’নাভাই’রাসে আ’ক্রান্তদের মধ্যে গা, হাত-পা ব্যথা, গলা ব্যথা, মা’থা যন্ত্র’ণা, ঘ্রাণশক্তি হা’রানো, সর্দি-কাশির মতো উপসর্গগু’লি পাশাপাশি শরীরের তাপমাত্রা ১০০ ডিগ্রি ফারেনহাইটের বেশি থাকে এবং জ্বর তিন দিনের বেশি সময় পর্যন্ত স্থায়ী হয়।

২. এই ধরনের করো’নাভাই’রাসের ক্ষেত্রে আ’ক্রান্তদের শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিক থাকে। জ্বর না থাকলেও গা, হাত-পা ব্যথা, গলা ব্যথা, মা’থা যন্ত্র’ণা, ঘ্রাণশক্তি হা’রানো, সর্দি মতো উপসর্গগু’লি দেখা যায় আ’ক্রান্তদের মধ্যে।

৩. এই ধরনের করো’নাভাই’রাসে আ’ক্রান্তদের মধ্যে দু’-তিন দিন ধরে পেটে ব্যথা, পেট কামড়ানো বা মোচড় দেওয়া, ডায়েরিয়া, খাওয়ার ইচ্ছে না থাকা, গলা ব্যথা, মা’থা যন্ত্র’ণার মতো সমস্যা দেখা দেয়। তবে এ ক্ষেত্রে ভাই’রাসে আ’ক্রান্তদের মধ্যে জ্বর বা সর্দি-কাশির মতো সমস্যাগু’লি থাকে না।

৪.এই ধরনের করো’নাভাই’রাসের ক্ষেত্রে আ’ক্রান্তদের মধ্যে গলা ব্যথা, মা’থা যন্ত্র’ণা, ঘ্রাণশক্তি হা’রানো, সর্দি-কাশি, জ্বরের পাশাপাশি সারাক্ষণ ক্লান্তি ও অবসন্নভাব লক্ষ্য করা যায়।

৫.এই ধরনের করো’নাভাই’রাসে আ’ক্রান্তদের মধ্যে গলা ব্যথা, মা’থা যন্ত্র’ণা, ঘ্রাণশক্তি হা’রানো, খাওয়ার ইচ্ছে না থাকা, সারাক্ষণ ক্লান্তি ও অবসন্নভাব, চিন্তা-ভাবনার ক্ষেত্রে বি’ভ্রান্তির মতো সমস্যা লক্ষ্য করা যায়। এর সঙ্গে সামান্য জ্বরও থাকে।

৬. এই ধরনের করো’নাভাই’রাসের ক্ষেত্রে আ’ক্রান্তদের মধ্যে গলা ব্যথা, মা’থা যন্ত্র’ণা, ঘ্রাণশক্তি হা’রানো, খাওয়ার ইচ্ছে না থাকা, পেটে ব্যথা, ডায়েরিয়া, জ্বর, সর্দি-কাশির পাশাপাশি শ্বা’স-প্রশ্বা’সের সমস্যাও লক্ষ্য করা যায়। এ ক্ষেত্রে রোগীদের শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা দ্রুত কমতে থাকে।
সূত্র: জি নিউজ

About Utsho

Check Also

২ খাবার খেলে স্মৃ’তিশ’ক্তি বাড়ে

প্রতিদিন আপনার স্মৃ’তিশ’ক্তি কমে যাচ্ছে? কিচ্ছু মনে রাখতে পাড়ছেন না? আর টেনশন করবেন না। এর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.