Breaking News

ঘুম নেই চোখে? প্রেমিকের গায়ের গন্ধ ঘুম আনে

রোজ রাতের এক গল্প? শুয়ে শুয়ে ১০০ থেকে ১ গোণা। বালিশ আঁকড়ে এপাশ ওপাশ করতে করতে আয় ঘুম যায় ঘুম আওড়ানো। তারপরেও নিদ নাহি আঁখিপাতে (Trouble Sleeping)! চোখের সামনে নতুন ভোর হতে দেখলেন। কিন্তু ক্লান্ত চোখের পাতায় ঘুম নামল কই?

ইদানিং, অফিস পলিটিক্স এড়াতে, অবসানের দাওয়াই হিসেবে হালকা ঘুমের ওষুধ অল্পবিস্তর সবাই খান। কিন্তু তার তো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে। সম্প্রতি, এক গবেষণায় প্রকাশ প্রেমিকের গায়ের গন্ধ নাকি ঘুম আনার দারুণ দাওয়াই। যাঁদের কিছুতেই রাতে দু’চোখের পাতা এক হয় না তাঁরা এই ফর্মুলা মেনে দেখতে পারেন। ঘুমোনোর সময় প্রেমিকের বদলে তাঁর পরা একটি জামা নিয়ে শুতে যান। নিজে পরেও শুতে পারেন।

কানাডার ইউনিভার্সিটি অফ ব্রিটিশ কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ফ্রান্সিস চেন (Frances Chen) জানিয়েছেন, ছোটরা যেমন মায়ের গায়ের গন্ধে ঘুমিয়ে পড়েন একই ভাবে প্রিয়জনের গায়ের গন্ধ বড়দের চোখে ঘুম আনতেও সাহায্য করে। এমনিতেই ঘুমের ক্ষেত্রে সুগন্ধের একটি বড় ভূমিকা আছে। তার ওপর কাছের মানুষের গায়ের গন্ধ মেন প্রশান্তি আনে। ফলে, রাতজাগানিয়ারাও এর প্রভাবে ঘুমিয়ে পড়েন নিমেষে।

গবেষণায় আরও দেখা গেছে, রোমান্টিক সম্পর্ক এবং ঘনিষ্ঠ শারীরিক সম্পর্ক শুধু শরীর নয়, ভালো রাখে মনকেও। এতে রাতের ঘুম গাঢ় হয়। কারণ, মানসিক প্রশান্তি শরীরেও স্বস্তি আনে। তাই যাঁরা দীর্ঘদিন রোম্যান্টিক সম্পর্কে আবদ্ধ বা যেসমস্ত দম্পতির মধ্যে সুস্থ, স্বাভাবিক শারীরিক সম্পর্ক রয়েছে তাঁদের চট করে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে না।

প্রেমিকের গায়ের গন্ধ ঘুম আনে
গবেষণা বলছে সমীক্ষার সত্যতা যাচাই করতে এরপরেই তিন মাসের একটি পরীক্ষা চালানো হয় সমস্ত লিঙ্গের যুগলের মধ্যে। তার আগে তাঁদের প্রেমিককে শারীরিক কসরত, কোনও বিশেষ সুগন্ধি যেমন পারফিউম, কোলন ইত্যাদি না ব্যবহার করতে বলা হয়।

যাতে তাঁর সুতির পোশাকে শুধুই তাঁর গায়ের গন্ধ থাকে। সেই গন্ধ অটুট রাখতে তাঁদের পোশাক সিল প্যাকেটে রেখে ফ্রিজের মধ্যে রাখারও ব্যবস্থা করা হয়। এরপরে, যুগলের দ্বিতীয় সদস্যকে প্রেমিক এবং অন্যের ব্যবহার করা শার্ট দেওয়া হয়। অপরিচিতের শার্ট কিন্তু ঘুম আনতে পারেনি প্রেমিকার।

কিন্তু চেনা গায়ের গন্ধ পেতেই তিনি ঘুিয়ে পড়েছেন চট করে। প্রতি সপ্তাহে সেই ঘুম বাড়তে বাড়তে দেখা গেছে, একসময় স্বাভাবিক উপায়েই নিশ্চিন্তে এক ঘুমে রাত কাবার করেছেন। প্রেমিকের শার্ট দেওয়ার পাশাপাশি প্রেমিকার কব্জিতে বেঁধে দেওয়া হয়েছিল মনিটর।

যা থেকে প্রমাণিত হয়েছে, সুখেই ঘুমিয়েছেন তাঁরা। প্রেমিকের শার্ট গায়ে পরে বা বালিশে জড়িয়ে তাঁদের মনে হয়েছে প্রিয়জন তাঁদের কাছেই আছে। ফলে, তাঁদের ঘুমের মাত্রা বেড়েছে বই কমেনি। দীর্ঘায়ু হতে চান? জীবনসঙ্গীকে ভালো রাখলে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হবেন বলছে গবেষণা

অনেকেরই বাইরে গেলে বা চেনা বিছানা না পেলে ঘুম হয় না। তাঁরা সঙ্গে প্রেমিকের শার্ট রাখতে পারেন। রাতে তাকে নিয়ে শুলে দেখবেন রাত গড়িয়ে কখন ভোর হয়েছে, আপনি ঘুমের মধ্যে টেরই পাননি!
তথ্যসূত্র: IANS

About Utsho

Check Also

হোটেলের বিছানার চাদর-বালিশ সাদা হওয়ার কারণ কী?

ঘুরতে নিশ্চয় ভালোবাসেন! আর দূরে কোথাও ঘুরতে যাওয়া মানেই হচ্ছে কোনো না কোনো হোটেলে রাত্রি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.