Breaking News

খুলনা বিভাগে কোভিড থেকে সুস্থ ৪৬ শতাংশ

খুলনা বিভাগে গতকাল শুক্রবার নতুন করে ১২২ জন কোভিড-১৯ রোগী সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে সুস্থ হলেন ৩ হাজার ৮৮৬ জন। শনাক্ত বিবেচনায় বিভাগে সুস্থ হওয়ার হার প্রায় ৪৬ শতাংশ।

বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ২২৮ জনের শরীরে করো’নাভাই’রাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে বিভাগে কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল আট হাজার ৪৪০ জন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে ৬ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃ’ত্যুর সংখ্যা হলো ১৪৭।

মা’রা যাওয়া লোকজনের মধ্যে খুলনায় সবচেয়ে বেশি ৫১ জন মা’রা গেছেন। এ ছাড়া কুষ্টিয়ায় ২২, যশোরে ১৮, ঝিনাইদহ ও সাতক্ষীরায় ১১ জন করে, বাগেরহাটে ৯ জন, নড়াইলে ৮ জন, মাগুরায় ৭ জন, মেহেরপুরে ৬ জন এবং চুয়াডাঙ্গায় ৪ জন মা’রা গেছেন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) মো. মনজুরুল মুরশিদ গতকাল এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্যমতে, খুলনা বিভাগের মধ্যে চুয়াডাঙ্গায় প্রথম কোভিডে রোগী শনাক্ত হয় গত ১৯ মার্চ। পরবর্তী ৭৩ দিনে শনাক্তের সংখ্যা ৫০০ ছাড়ায়। ১৬ জুলাই ১২০তম দিনে রোগীর সংখ্যা ৮ হাজার ছাড়ায়।

নতুন শনাক্ত ২২৮ জনের মধ্যে খুলনা জেলায় ৬৯ জন, বাগেরহাটে ১ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১৪ জন, যশোরে ১৫ জন, ঝিনাইদহে ২৭ জন, কুষ্টিয়ায় ৩৩ জন, মাগুরায় ২২, মেহেরপুর ৫, নড়াইলে ২৩ এবং সাতক্ষীরায় ১৯ জন রয়েছেন।

অধিদপ্তরের দেওয়া হিসাবে, বিভাগের মোট সংক্রমিত ৮ হাজার ৪৪০ জনের মধ্যে ৩ হাজার ৪৩৩ জনই খুলনা জেলার। বিভাগের মোট রোগীর ৪১ শতাংশ খুলনার। এ ছাড়া বাগেরহাটে ৩৬১, চুয়াডাঙ্গায় ৩৫০, যশোরে ১ হাজার ২৩২, ঝিনাইদহে ৫৮৭, কুষ্টিয়ায় ১ হাজার ১০৩, মাগুরায় ২৯২, মেহেরপুরের ১২০, নড়াইলে ৪৮৬ এবং সাতক্ষীরায় ৪৭৬ জন কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছেন।

About Utsho

Check Also

যে ৫ কারণে বাংলাদেশে দ্রুত কমে যেতে পারে করো’না

বাংলাদেশে আশাবা’দী মানুষের সংখ্যা কম নয় এবং সংশয়বা’দীদের বি’রুদ্ধে আশাবা’দীরা সবসময় আশার আলো ছড়িয়ে থাকেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.