Breaking News

খুলনায় কোরবানির পশুহাটে জীবাণুনাশক টানেল স্থাপন করা হবে : সিটি মেয়র

খুলনা মহানগরীতে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই পশুহাট বসাতে হবে। কোন রেলস্টশনের পাশে এবং বিনা অনুমতিতে কোন হাট বসানো যাবে না। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে পশুর হাটে জীবাণুনাশক টানেল স্থাপন করা হবে। এবছর কোন বয়স্ক এবং শিশুদের পশুর হাটে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। প্রত্যেকের মাস্ক পরে গরুর হাটে প্রবেশ করতে হবে। হাটের প্রবেশ পথে জীবাণুনাশক হ্যান্ডস্যানিটাইজার রাখা হবে। এছাড়া করোনার কারণে এবছর কেসিসি’র উদ্যোগে অনলাইনের মাধ্যমে পশু ক্রয় ও বিক্রয় করা হবে।
খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক-এর সভাপতিত্বে আসন্ন ঈদ-উল আযহা উপলক্ষ্যে আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় নগর ভবনের শহীদ আলতাফ মিলনায়তনে কোরবানির পশুরহাট বিষয়ে এক প্রস্তুতিমূলক সভায় এসকল সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সভায় অনলাইন ও ভার্চুয়াল পশুরহাট সম্পর্কে, অবৈধভাবে পশুরহাট যাতে বসতে না পারে, পশুরহাটে ওয়াকিটকি ব্যবহার, হাটের অবকাঠামোর উন্নয়ন, নিরাপত্তা সংক্রান্ত, ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও নিচু জায়গা ভরাট করাসহ পশুরহাট বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

সভায় কেসিসির ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ শামসুজ্জামান মিয়া স্বপনকে আহবায়ক ও বাজার স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান ও ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইমাম হাসান চৌধুরী ময়নাকে সদস্য সচিব করে পশুরহাট পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে কেসিসির প্যানেল মেয়র-১ মোঃ আমিনুল ইসলাম মুন্না, প্যানেল মেয়র-২ মোঃ আলী আকবর টিপু, প্যানেল মেয়র-৩ মেমরী সুফিয়া রহমান শুনু, কাউন্সিলর মোঃ আনিসুর রহমান বিশ্বাস, মোঃ হাফিজুর রহমান মনি, কাজী আবুল কালাম আজাদ বিকু, এস এম খুরশিদ আহমেদ টোনা, মোঃ মনিরুজ্জামান, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর আমেনা হালিম বেবী, পারভীন আক্তার, লুৎফুন নেছা লুৎফাসহ সংশ্লিষ্ট এলাকার কাউন্সিলরগণকে কমিটিতে অর্ন্তভুক্ত করা হয়েছে।

সভায় কেসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, সচিব, প্রধান প্রকৌশলী, নির্বাহী প্রকৌশলী-৩, নির্বাহী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক), নির্বাহী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা, কঞ্জারভেন্সী অফিসার, বাজার সুপারসহ কেসিসির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

পরে মেয়র খুলনার এক বিশিষ্ট ব্যবসায়ীর দেওয়া করোনাভাইরাস প্ররিরোধে হাইফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা খুলনা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করেন। এসময় খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুন্সী মোঃ রেজা সেকেন্দার, মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ, সিভিল সার্জন ডা: সুজাত আহমেদ, খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম নজরুল ইসলাম, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মামুন রেজা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সকালে সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক ২৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয় চত্বরে ঘরে থাকা একশত ৭১ কর্মহীন নিম্নআয়ের শ্রমজীবী, অসহায়, দুস্থ ও হতদরিদ্রদের মাঝে সাত কেজি করে চাল ও নগদ অর্থসহ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন।

About Utsho

Check Also

হোটেলের বিছানার চাদর-বালিশ সাদা হওয়ার কারণ কী?

ঘুরতে নিশ্চয় ভালোবাসেন! আর দূরে কোথাও ঘুরতে যাওয়া মানেই হচ্ছে কোনো না কোনো হোটেলে রাত্রি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.