Breaking News

ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে আরো দুটি হ’ত্যা মা’মলা

টে’কনাফ থা’না পু’লিশ কর্তৃক মুছা আকবর ও সাহাব উদ্দিনকে ক্র’সফা’য়ারে হ’ত্যার অ’ভিযোগে টেক’নাফ থা’নার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ৫৩ জনের বি’রুদ্ধে একদিনে আরও দুটি মা’মলার আবেদন করা হয়েছে। বুধবার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (টেক’নাফ-৩) হেলাল উদ্দীনের আ’দালতে এই দুই মা’মলার আ’বেদন করা হয়েছে।

নি’হ’ত মুছা আকবরের স্ত্রী শাহেনা আকতার ও সাহাব উদ্দীনের বড়ভাই হাফেজ আহামদ বা’দী হয়ে এই দুই মা’মলার আবেদন করেন। দুই মাম’লার বাদীপক্ষের আইনজীবীরা সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। এদিকে একটি মা’মলায় হোয়াইক্যং ফাঁ’ড়ির ইনচার্জ মশিউর রহমানকে প্রধান ও প্রদীপ কুমার দাশকে ২নং এবং অন্য মা’মলায় এসআই দীপক বিশ্বাসকে প্রধান এবং ওসি প্রদীপকে ৩নং আ’সামি করা হয়।

নি’হ’ত মুছা আকবরের মা’মলা এজাহারে বা’দী উল্লেখ করেন, গত ২৭ ফেব্রুয়ারি পু’লিশ হোয়াইক্যং ইউনিয়নের খারাই’ঙ্গ্যা ঘো’নার নি’হ’ত মুছা আকবরের বড় ভাই আলী আকবরের বাড়ি পু’ড়িয়ে দে’য় টে’কনাফ থা’নার একদল পু’লিশ। এ ঘ’টনায় কক্সবাজার প্রেস ক্লাবে একটি সংবাদ সম্মেলন করে তাদের পরিবার।

এতে ক্ষু’ব্ধ হয়ে ২৮ মার্চ রাতে আবু মুছাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় পু’লিশ। পরে ক্র’সফা’য়ারের হুম’কি দিয়ে মুছার পরিবারের কাছে ২০ লাখ টাকা দাবি করা হয়। তিন লাখ দিতে সামর্থ্য হয় মুছার পরিবার। তিন লাখ টাকা নিয়েও ওই দিন ভোরে মুছা আকবরকে ক্র’সফা’য়ারের নামে গু’লি করে হ’ত্যা করে পু’লিশ।

বাদীপক্ষের আইনজীবী রিদুয়ান আলী বলেন, ফৌ’জদারি মা’মলার এজাহারটি আমলে নিয়েছেন আদালত এবং ওই ঘ’টনা সং’ক্রান্ত কোনো মা’মলা হয়েছে কিনা, তা আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে আদালতকে জানাতে টেক’নাফ থা’নার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন। অন্যদিকে নি’হ’ত সাহাব উদ্দীনের মাম’লার এজাহারে বাদী উল্লেখ করেন,

২০১৯ সালের ১৭ এপ্রিল টে’কনাফ থা’নার এসআই দীপক বিশ্বাসের নেতৃত্বে একদল পু’লিশ সাহাব উদ্দীনকে তার বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়। পরে ক্র’সফা’য়ার না দেয়ার কথা বলে তার পরিবার থেকে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করা হয়। পরিবার ৫০ হাজার টাকা দেয়। কিন্তু আরও ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা না দেয়ায় ২০ এপ্রিল রাতে কাঞ্জরপাড়া ধান’ক্ষেতে ক্র’সফা’য়ারের নামে সাহাব উদ্দীনকে গু’লি হ’ত্যা ক’রা হয়।

এই মা’মলার বাদীপক্ষের আইনজীবী শাহাআলম জানান, ফৌ’জদারি মা’মলার এজাহারটি আমলে নিয়েছেন আ’দালত এবং ওই ঘ’টনা সং’ক্রান্ত কোনো মা’মলা হয়েছে কিনা, তা আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে আ’দালতকে জানাতে টে’কনাফ থা’নার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন। বুধবার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (টে’কনাফ-৩) হেলাল উদ্দীনের আ’দালতে এ দুই মা’মলার ওপর উল্লিখিত আদেশ হয়।

About Utsho

Check Also

সেই মা’রিয়াকে নিয়ে খেলায় মা’তলেন ডিসি

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজে’লার হেলতলা ইউনিয়নের খলিসা গ্রামে পরিবারের সব স্বজন হা’রানো সেই মা’রিয়া সুলতানা এখনও …

Leave a Reply

Your email address will not be published.