Breaking News

আস্থা হারিয়েছে সারিকা

সারিকা সাবরিন। দেশের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী। ২০০৮ সালে মডেলিং এর মাধ্যমে মিডিয়ায় পা রাখেন তিনি। শুরুটা ভালো হলেও ক্যারিয়ারের স্বর্ণালি সময় থেকেই কাজে অনিয়ম শুরু করেন এই তারকা। শুটিং সেটে দেরি করে যাওয়া, সিডিউল ফাঁসানো, কথা দিয়ে কথা না রাখাসহ অনেক অভিযোগ তার বিরুদ্ধে।

এ নিয়ে বহুবার সমালোচিতও হয়েছেন তিনি। ফলে নির্মাতারা তার উপর আর আস্থা রাখতে পারছে না। দর্শকরাও তাকে ভিন্ন চোখে দেখতে শুরু করেছেন।ক্যারিয়ারে সারিকার যখন স্বর্ণালি সময় ঠিক তখন হুট করেই বিয়ে, এরপর সংসার ও সন্তান নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

এরপর দীর্ঘ বিরতি। তারপর সংসার জীবনের বিচ্ছেদ। এরপর আবারও ফিরে আসা। কিন্তু এই ফিরে আসা বেশিদিন স্থায়ী হয়নি। আবারও নিজেকে অবরুদ্ধ করে ফেলেন তিনি। এ সময়ে কেউই আর তার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেনি।যদিও গত বছর থেকে আবারও মিডিয়ায় নিয়মিত হওয়ার চেষ্টা করেন হরিণ চোখের এই তারকা।

প্রতি মাসেই অল্প স্বল্প নাটকে কাজ করে যাচ্ছিলেন। কিন্তু করোনা ভাইরাস আসার পর সেই কাজের গতি আবারও মন্থর হয়ে যায়। তবে বিরতি কাটিয়ে ঈদে বেশ কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেন। ঈদের পর ৯ আগস্ট ‘হৃদয়ের কোলাহল’ নামের একটি নাটকে অভিনয় করেন।

সেই সময় গণমাধ্যমকে তিনি জানান, আরও তিনটি নাটকে আগস্ট মাসেই অভিনয় করবেন; কিন্তু সেই কথাও রাখেননি সারিকা।এ নিয়ে তিনি বলেন, ‘সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে নতুন কাজের বিষয়ে বিস্তারিত জানাব।’ অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘ঈদের আগে যে কাজগুলো করতে পারিনি, সেগুলোর শুটিং করার কথা ছিল আমার।

একটি নাটকে কাজও করেছি। বাকিগুলোর কাজ নিয়ে নির্মাতারা আর অগ্রসর হননি। এদিকে আমিও একটু অবসর সময় কাটানোর চেষ্টা করছি। সবকিছু ঠিক থাকলে সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে কাজে ফিরব।’ তবে কথার সঙ্গে কাজের মিল না থাকায় সারিকার ওপর আস্থা হারিয়ে ফেলেছে নির্মাতারা।

About Utsho

Check Also

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শা’রীরিক অ’বস্থার উ’ন্নতি

করোনায় আক্রান্ত হয়ে কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.